মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ গোলাম কবির তালুকদারের নামাজে জানাযা সম্পন্ন হয়েছে।
শুক্রবার ( ১৮ মার্চ) বাদ আসর পদুয়া সুখবিলাস উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযাই মাননীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি মহোদয়, জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও স্থানীয় প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।
জানাযার পূর্বে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোঃ গোলাম কবিরের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন ও শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।
গোলাম কবির তালুকদারের মৃত্যুতে আরো শোক প্রকাশ করেছেন আ. লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবাইদুল কাদের, আ. লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।
আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত দলের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শুক্রবার এসব কথা জানানো হয়।
এসময় আরো শোক করেন কক্সবাজার সদরের এমপি কমল সরোয়ার ও জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাসহ আরো অনেকে।
জানাযা পূর্ব সমাবেশে মাওলানা ফারুকের উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন,মাননীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী জননেতা ডঃ হাছান মাহমুদ এমপি, কক্সবাজার সদর এমপি কমল সরোয়ার, পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর, শওকত হোসেন তালুকদার, পদুয়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও মরহুমের বড় ছেলে মোঃ জাহিদ হাছান তালুকদার।
নামাজে জানাযা শেষে সুখবিলাস নিজ গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ গোলাম কবির তালুকদার তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীর চাচা।
বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ গোলাম কবির তালুকদার শুক্রবার (১৮ মার্চ) মধ্যরাত ২টা ২০মিনিটের দিকে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালীন মরহুমের বয়স ছিল ৮৮ বছর। তিনি পদুয়ায় নিজ বাসভবনে স্ত্রী, তিনকন্যা, তিন পুত্র ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।