মো:ইদ্রিছ- মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) ও হযরত আয়েশা (রা.) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীন কুমার জিন্দাল কতৃক কটুক্তি ও চরম অবমাননাকর মন্তব্য করার প্রতিবাদে দক্ষিণ রাজানগর রাজাভূবন এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (১৩জুন) বিকালে দক্ষিণ রাজানগর রাজাভূবন এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিলটি খন্ডলিয়াপাড়া থেকে বের হয় রাজারহাট বাজার, সিকদারপাড়ার মূল সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাজারহাট সিএনজি স্টেশন মোড় চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে শতশত নবি প্রেমিক মুসলিম জনসাধারণ ও শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছেন। বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে বিক্ষোভকারীরা বিভিন্ন ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানাতে দেখা যায়।

প্রতিবাদ সমাবেশে ফুল বাগিচা আজিজুল উলুম মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা নাসির উদ্দীনের সভাপতিত্বে রুকনুল ইসলাম খন্ডলিয়া পাড়া মাদ্রাসার নির্বাহী পরিচালক মাওলানা মুঈন উদ্দীনের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন রুকনুল ইসলাম খন্ডলিয়া পাড়া মাদ্রাসার মুহাদ্দিস আল্লামা মুফতি হাবিবুল্লাহ,দক্ষিণ রাজানগর ৩নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মুসলিম উদ্দিন সিকদার,মাওলানা নুরুল আজিম,মাওলানা ইসহাক,উপজেলা উত্তর ছাত্রসেনার সভাপতি জয়নাল আবেদিন,

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, রাজার হাট শাহী জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা জমির উদ্দীন,দক্ষিণ রাজানগর ইউপি সদস্য আব্দুল কাদের, জুনাইদ বিন ইব্রাহিম, সাইফুল, রায়হান মোস্তফা, জোবায়ের, মাওলানা সাজেদুর রহমান, জাহেদ, রাশেদ আহমদ সিকদার, জামসেদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা-মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) ও হযরত আয়েশা (রা.)কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীন কুমার জিন্দাল কতৃক কটুক্তি ও চরম অবমাননাকর মন্তব্য করায় তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান ও নবীর প্রতি কটুক্তিকারীদের শাস্তির আওতায় আনতে ভারতের প্রতি আহবান জানান এবং ভারতকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষমা চাওয়ার জন্য বলেন। ভবিষ্যতেও কেউ যেনো এই ধরনের নবী অবমাননাকর কথা বলতে না পারে সেজন্য প্রয়োজনে আইন করারও ভারতের প্রতি আহবান জানান নেতৃবৃন্দরা। দেশের মুসলিম জনসাধারণকে ভারতীয় পণ্য ও ভারতীর চ্যানেল বয়কটের আহবান জানান আন্দোলনকারীরা।

সমাবেশ শেষে বিক্ষোভকারী জনতা নূপুর শর্মা ও কুমার জিন্দাল এর কুশপত্তলিকা পোড়ানো হয়।