মো: ইদ্রিছ :- রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী সদস্য ও সুখবিলাস ফিশারিজ এন্ড প্ল্যানটেশনের চেয়ারম্যান, পরিবর্তনের নায়ক সফল মৎস্য খামারী এরশাদ মাহমুদের ৫৮তম জন্মদিন উদযাপিত হয়েছে। ১৬ জুন বৃহস্পতিবার ৫৮ বছরে পা রাখেন এরশাদ মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) বিকালে সুখবিলাস মুক্তিযোদ্ধা পার্ক ও মুক্তিযোদ্ধা বাজারে জন্মদিন উপলক্ষে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ,  স্বেচ্ছাসেবক লীগ, বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা সকাল থেকে উৎসবমুখর পরিবেশে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাতে থাকেন। তাদের অফুরন্ত ভালবাসায় সিক্ত হন তিনি।

বিকেলে সুখবিলাস ফিশারীজ এন্ড প্ল্যান্টেশন,মুক্তিযোদ্ধা পার্ক এন্ড রেস্টুরেন্ট,পদুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ,ব্যবসায়ী ও সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে বিশেষ আয়োজনে জন্মদিন উদযাপন করা হয়।

এসময় পদুয়া ইউনিয়ন আ.লীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ,ব্যবসায়ী ও সামাজিক সংগঠনের নেতারাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। নেতাকর্মীদের ভালবাসায় আজকের দিনটি উপভোগ করছেন তিনি। এরশাদ মাহমুদের  জন্মদিন উপলক্ষে তার দীর্ঘায়ু কামনায় রাঙ্গুনিয়ার বেশকিছু মসজিদ ও মাদ্রাসায় দোয়া মোনাজাতের আয়োজন করা হয়েছে।

১৯৬৪ সালের এই দিনে এরশাদ মাহমুদ চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার দুর্গম পদুয়া ইউনিয়নের সুখবিলাস গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের জন্মগ্রহণ করেন। বাবা এবং মা দুজনই চট্টগ্রাম আদালতের আইনজীবী। শহরেই নিজেদের বাড়ি। জন্ম থেকে শহরে বড় হওয়া এবং পড়ালেখা। গ্রামে মাঝে মধ্যে বেড়াতে গেলেও কখনো কয়েক দিনের বেশি থাকা হতো না।

বিলুপ্ত প্রজাতি গয়াল পালন, মৎস, কৃষি বিপ্লব ও সমাজ পরিবর্তনের একজন সফল মানুষ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন তিনি। সমগ্র চট্টগ্রামে মৎস্য চাষাবাদে তিনি মডেল খামারি। পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর পুরস্কার। নিজের বাড়ির পুকুর থেকে যে মাছ চাষের সূচনা করেছিলেন এরশাদ মাহমুদ, তার এখন মৎস্য খামারের সংখ্যা ৫৬টি। শুধু মাছের খামারই নয়, এরশাদ মাহমুদের কৃষিভিত্তিক অন্যান্য প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে বিলুপ্তপ্রায় প্রাণী গয়াল প্রজনন কেন্দ্র, বায়োগ্যাস প্লান্ট, আম বাগান, লিচু বাগান, কলাবাগান, আগর বাগান, বণ্যপ্রাণীর অভয়ারণ্য। এরশাদ মাহমুদের এই সমন্বিত প্রকল্পের নাম ‘সুখবিলাস ফিশারিজ এন্ড প্লান্টেশন’। তার এমন সাফল্যের গল্প যেন স্বপ্নকে হার মানায়।  ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। এলাকার সমাজ সেবায় সর্বদা তিনি নিজেকে নিয়োজিত রাখেন।