মোহাম্মদ ইদ্রিছ : রাঙ্গুনিয়া উপজেলার দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া ত্রিপুরা সুন্দরী মাতব্বর পাড়া নিবাসী বন্য হাতির আক্রমণে মোঃ আব্দুল আজিজ (৬০ ) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। তিনি পদুয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ত্রিপুরা সুন্দরী মাতব্বর বাড়ির বাসিন্দা।
শনিবার (২জুলাই) আনুমানিক রাত ১টার দিকে পদুয়া ত্রিপুরা সুন্দরী পালির বাপের খামার ভিটায় বেগুন ক্ষেতে এ ঘটনা ঘটে।


দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ওবাইদুল ইসলাম বলেন, হাতির আক্রমনের বিষয়টি আমরা শুনে সাথে সাথে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি নিহত ব্যক্তির লাশ তার করা বেগুন ক্ষেতে পড়ে আছে। আমরা লাশটি তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করবো।
প্রত্যেক্ষদর্শীরা আবুল কালাম চৌধুরী জানায়,পাশে আমার গরুর খামার,রাতে আমি খামার পাহারা দিচ্ছিলাম এমতাবস্থায় আনুমানিক রাত একটার দিকে বন্যহাতির একটি আওয়াজ শুনতে পাই,তখন আমরা ভয়ে চুপচাপ বসে থাকি। পরে সকালে মোহাম্মদ আবদুল আজিজকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করতে গিয়ে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়, পরে নারিচ্ছা বিট কর্মকর্তা, চেয়ারম্যান, দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানাকে ফোন করে জানায়।পরে তারা এসে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।
স্থানীয় কৃষক মোহাম্মদ ইউসুফ জানায়,সকালে আমরা ক্ষেতে গেলে আব্দুল আজিজকে হাতি আক্রমন করে লাশ পড়ে আছে। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার পুলিশকে খবর দেয়া হয়।
স্থানীয় মেম্বার সায়েদুল আলম সায়েদ বলেন, হাতির আক্রমণে আব্দুল আজিজের মৃত্যুর বিষয়টি আমি দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানা ও চেয়ারম্যানকে জানিয়েছি। পুলিশ লাশটি ঘটনাস্থল থেকে নিয়ে গেছেন।
নিহত আব্দুল আজিজের স্ত্রী বলেন,আমার স্বামী আনুমানিক রাত ১২ টার দিকে ক্ষেতে পাহারা দিতে যায়,সকালে বাড়িতে না আসায় খোজাখোজির এক পর্যায়ে স্থানীয় কৃষকদের কাছ থেকে জানতে পারি আমার স্বামীকে বন্যহাতি মেরে ফেলেছে। আমার দুটি সন্তান রয়েছে নুরুদ্দিন (৫) ও রুপা আকতার (৩), আমরা অসহায়, আমরা সরকারের কাছে ক্ষতিপূরণ ও সার্বিক সহযোগিতা চাই।
রাঙ্গুনিয়া নারিশ্চা বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা মোঃ মিন্টু কুমার দে বলেন, আজ রাত আনুমানিক একটি বন্য হাতির আক্রমনে পদুয়া ত্রিপুরা সুন্দরী এলাকার আব্দুল আজিজ নামের এক কৃষকের তার বেগুন ক্ষেতে মৃত্যু হয়। আমরা ঘটনাস্থল গিয়ে দেখি হাতিটি সেখানে নেই। নিহত আব্দুল আজিজের লাশটি পুলিশ নিয়ে গেছে।
স্থানীয়রা নিহত কৃষকের ক্ষতিপূরণ দাবি করে পরবর্তীতে বন্যহাতি নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থার নেয়ার সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান।