রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নে আজিমনগর এলাকায় পুলিশ ও সন্ত্রাসীদের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধে দক্ষিণ  রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি ওবাইদুল ইসলাম, উপ পরিদর্শক মোঃ আবুল ফায়েজ জুয়েলসহ আহত হয় মোট ৫ পুলিশ কর্মকর্তা। 

ওসি ওবাইদুল ইসলাম


মঙ্গলবার (৫ জুলাই) আনুমানিক রাত ১১ টার দিকে সরফভাটার শীর্ষ সন্ত্রাসী কামাল-তোফায়েল বাহিনীর সাথে এই ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় ওসি ওবায়দুল ইসলাম সহ চিকিৎসা সেবা নিতে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক চিকিৎসা শেষে পুলিশ কর্মকর্তাদের বিশ্রাম নিতে পরামর্শ দেন।

ছবিঃএস আই জুয়েল

ওসি ওবাইদুল ইসলাম আগকের রাঙ্গুনিয়া নিউজকে জানান, দীর্ঘদিন বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে সন্ত্রাসীদের সঠিক অবস্থান জানতে পেরে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানাধীন পদুয়া ইউনিয়নের আজিমপুর মহিষের বাম এলাকায় গহীন জঙ্গলে কামাল-তোফায়েল বাহিনীর সাথে বন্দুক যুদ্ধে আমিসহ আরো ৪ জন পুলিশ কর্মকর্তা গুলিবিদ্ধ হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, বিশেষ করে সরফভাটা ১ নং ওয়ার্ডের মিরেরখিল, হাজারিখিল এলাকাসহ আশেপাশের পদুয়া থেকে শুরু করে বোয়ালখালী পর্যন্ত মাদক,অস্ত্র, মুক্তিপণ ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে কামাল-তোফায়েল বাহিনী।

ছবিঃ কামাল-তোফায়েল বাহিনীর প্রধান

 দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানা প্রতিষ্ঠিত হওয়া পর্যন্ত আজ অব্দি অসংখ্য অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা বিভিন্ন সময় অভিযান পরিচালনা করার সুযোগের অপেক্ষায় ছিলাম। 

ছবিঃ সন্ত্রাসী মদন কামাল


বন্দুকযুদ্ধ পরিচালনা করেন ওসি ওবাইদুল ইসলাম এই সময় কামাল ওরফে মদন কামালকে দুটি দেশীয় অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার করেছেন।

ছবিঃ উদ্ধারকৃত অস্ত্র

তিনি আরো জানান, সন্ত্রাসী বাহিনীর কামাল ও তোফায়েলসহ আনুমানিক ৮ থেকে ১০জন সন্ত্রাসী আহত হয়েছেন।

তারা কোন সরকারি বা বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে তাই এই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।