#তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের পক্ষ থেকে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার বিভিন্ন এতিমখানা ও দুস্থদের মাঝে কোরবানির গোশত বিতরণ করা হয়েছে। তথ্যমন্ত্রীর পারিবারিক দাতব্য প্রতিষ্ঠান এনএনকে ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এসব গরুর গোশত দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (১২ জুলাই) দুপুরে উপজেলার মরিয়মনগর চৌমুহনী এলাকায় কোরবানির মাংস বিতরণ করেন তথ্যমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব ইমরান শরীফ ইমু।

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ইকবাল হোসেন, মরিয়ম ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক হিরু, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব রানা, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শওকত হোসেন সেতু, সাধারণ সম্পাদক মো. কামাল উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আলম শাহ, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক আবু ছালেহ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আলী শাহ, আওয়ামীলীগ নেতা মো. আলমগীর, মো. মনির, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ওমর ফারুক, ছাত্রলীগ নেতা মো. ইমতিয়াজ, মো. নয়ন, মো. রাকিব, মো. আশরাফ, মো. সাজ্জাদ, মো. আকবর প্রমুখ। এদিন দুস্থ ও অসহায় শতাধিক মানুষের মাঝে দেড় কেজি করে কোরবানির মাংস বিতরণ করা হয়।

তথ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা এমরুল করিম রাশেদ জানান, মাংস বিতরণের জন্য উপজেলার চারটি জনাকীর্ণ স্থান পদুয়া, ধামাইরহাট, রাণীরহাট ও মরিয়মনগর এলাকাকে নির্ধারণ করা হয়। পরে সেখানে কোরবানি দেয়া গরু জবেহ করে মাংসগুলো স্থানীয় দুঃস্থ ও অসহায়দের মাঝে বিতরণ করা হয়। এরআগে তথ্যমন্ত্রীর পক্ষ থেকে রেডক্রিসেন্টের সহায়তায় সাড়ে ৩শত দুস্থ মানুষ ও বিভিন্ন এতিমখানায় মাংসের প্যাকেট বিতরণ করা হয়। প্রতি প্যাকেটে তিন কেজি করে মাংস দেয়া হয়েছে। প্রতিবছর কোরবানির সময় তথ্যমন্ত্রীর পারিবারিক প্রতিষ্ঠান এনএনকে ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এই কর্মসূচী বাস্তবায়ন করা হয়।