চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় রুবেল সিকদার (৩৫) হত্যা মামলায় পলাতক আসামি দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী মো. মোরশেদকে (৩৩) গ্রেফতার করেছে দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশ। 
বুধবার (১৬ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড সিপাহীপাড়া তার নিজ বসতঘর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
এর আগে ২০২০ সালের ১৫ আগস্ট শিলক ইউনিয়নের ফুলতলী বাজার শাহ আলম চৌধুরী স্কুলের গেটে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয় রুবেল সিকদারকে। পরে নিহত রুবেলের বাবা আমিন সিকদার বাদী হয়ে রাঙ্গুনিয়া মডেল থানায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। নিহত রুবেল শিলক ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড রাজাপাড়া গ্রামের আমিন সিকদারের ছেলে।
গ্রেফতারকৃত মোরশেদ সরফভাটা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের একই এলাকার মো.জালাল প্রকাশ জালাল বৈদ্যের ছেলে। 
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শিলক ইউনিয়নের ফুলতলী বাজারের শাহ আলম চৌধুরী স্কুলের গেটের সামনে অজ্ঞাতনামা কয়েকজন সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী চুরি মেরে সিএনজি করে পালিয়ে যায়। পরে তার বাবা ঘটনাস্থলে গিয়ে ছেলেকে উদ্ধার করে গ্রাম্য চিকিৎসকের মাধ্যমে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
মামলা নং মামলা নং- ১২(০৮)২০, ধারা- ৩০২/৩৪ পেনাল কোড (জিআর নং-১৭২/২১),  মামলা নং- ১৯(৭)২০, ধারা- ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬(১) এর ১০(ক)/৪১ (জিআর নং- ১৪৮/২০), মামলা নং-২০(০৭)২০২০ ইং, ধারা- ১৪৩/৩৪১/১৮৬/৩৫৩/৩৩২/৩৩৩ পেনাল কোড (জিআর নং-১৪৯/২০)।
রাঙ্গুনিয়া থানার মামলা নং-২৭(০৬)১৫, ধারা- ১৪৩/৪৪৭/৩২৩/৩২৪/৩২৬/৩০৭/৩৭৯/৫০৬ পেনাল কোড,  রাঙ্গুনিয়া থানার মামলা নং- ১৩(০১)১৮, ধারা- ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯(১) এর ৯ (খ)।
দক্ষিণ রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিলো মোরশেদ। তার নামে হত্যা মামলাসহ মাদক মামলাও রয়েছে। ২০২০ সালে রুবেল সিকদার হত্যার পর থেকে সে বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে নিজ বসতঘর থেকে গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারের সময় সে এক পুলিশ সদস্যকে কামড়ে পালানোর চেষ্টা করিলে। আলাদা ফোর্স পাঠিয়ে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়।