নিউজ ডেস্ক: সুনামধন্য মানবাধিকার সংগঠন,মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটির নাম ব্যবহার করে সিলেটের বেশ কিছু পুলিশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ,তাদের বিচার এবং গ্রেফতারের দাবি করা অবৈধ ও ভূয়া আইডির এডমিন এবং অনলাইনে পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে অপপ্রচারকারী পুলিশে চাকুরীরত এনামুল কে আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানিয়েছেন মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটি (M.T.P.S) এর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের নেতৃবৃন্দরা।


মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটি M.T.P.S. (মাতপ্’স) কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান এ.বি.এম.এরশাদ হোসেন এবং মহাসচিব এম.এস.খান, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান, সাংগঠনিক সচিব সাংবাদিক ও সম্পাদক, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগ) মোঃ ইদ্রিস, কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম সহ মানবিক নেতৃবৃন্দগন গণমাধ্যমে পাঠানো এক যৌথ বিবৃতিতে এ কথা বলেন,
সিলেট সুনামগঞ্জ জেলার বাসিন্দা পুলিশে চাকুরীরত এনামুল,পুলিশের সংবিধান ও নিয়মনীতি ভঙ্গ করে পুলিশে চাকুরীর পরিচয় গোপন করে, মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটি সুনামগঞ্জ জেলা শাখায় মানবিক কর্মী হিসেবে কয়েক বছর আগে যুক্ত হয়।
(পুলিশে চাকুরীরত অবস্থায় কোন পুলিশ সদস্য মানবাধিকার সংগঠনে যুক্ত হওয়া পুলিশের সংবিধান,নিয়মনীতি ও শৃংখলা ভঙ্গের সামিল)


পুলিশ এনামুল পরবর্তী পর্যায়ে সিলেট বিভাগীয় কমিটিতে নিজেকে স্বঘোষিত সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং সমন্বয়কারী দাবি করে বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম ও অপরাধের সাথে যুক্ত হয়ে সুনামধন্য মানবাধিকার সংগঠনের নাম ব্যবহার করে নিজের হীনস্বার্থ চরিতার্থ ও সংগঠন বিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয় ।

এরিই মধ্যে তার বিরুদ্ধে গুরুতর বেশ কিছু অভিযোগ সংগঠনের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির বরাবরে উত্থাপিত হয়, উত্থাপিত অভিযোগের মধ্যে রয়েছে মানবাধিকার সংগঠন কে নিজের স্বার্থে যেনতেন ভাবে ব্যবহার করা,মানুষের সাথে জঘন্য অসভ্য আচরণ,গালিগালাজ, সম্মানীয় গুণিজনদের কে হেয় প্রতিপন্ন করা, কথায় কথায় দাম্ভিকতা দেখানো, এমন কি হামলা মামলা ও থানা হাজতের ভয় ভীতি প্রদর্শন করা ইত্যাদি। যার কারণে গত কয়েক বছর যাবত কেন্দ্রীয় কমিটি আইডি কার্ড ই্যসূ স্থগিত করে তার।

কেন্দ্রীয় কমিটি,পুলিশ এনামুল এর কার্ড ইস্যু স্হগিত রাখায় এনামুল সংগঠনের উপর ক্ষিপ্ত ও ক্ষুব্ধ হয়ে, প্রতিনিয়ত দেশে-বিদেশে সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের দায়িত্বশীল ও মানবিক কর্মীদের ফোনকল ও এসএমএস এর মাধ্যমে এনামুল নিজেকে পুলিশ অফিসার পরিচয় দিয়ে হামলা মামলার ভয় ভীতি প্রদর্শন এবং সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির শীর্ষ দায়িত্বশীলদের নামে মানহানিকর মিথ্যা অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে। তার যথেষ্ট তথ্য প্রমাণ এবং তার হুমকি ধামকির রেকর্ড ও লিখা এসএমএস সংগঠনের কাছে সংরক্ষিত রয়েছে যাহা ইতি মধ্যে কেন্দ্রীয় ভাবে পুলিশ প্রশাসনের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নিকট প্রেরণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে এনামুল এর কার্ড ইস্যু স্হগিত হওয়ার পরেও পুলিশ এনামুল মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটির নাম ব্যবহার করে একাধিক অবৈধ ও ভূয়া ফেইসবুক আইডি খুলে সংগঠনের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে এবং ঐ সমস্ত ভূয়া আইডির এডমিন পুলিশ এনামুল নিজে, Channel One BD নামে অনিবন্ধিত একটি অনলাইন চ্যানেলও সে পরিচালনা করে, এবং সারা দেশে সংবাদ কর্মী ও প্রতিনিধি নিয়োগের নামে অবৈধ জমজমাট ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে তিনি।
বিশেষ ভাবে উল্লেখ্য যে, পুলিশ এনামুল এর বিভিন্ন ছদ্ধ (বাংলায় এবং ইংলিশ) নামে একাধিক ফেইসবুক আইডি রয়েছে, যেমন: এনামুল, ওরফে এনামুল হক, ওরফে এনামুল ইসলাম, ওরফে এনামুল ইসলাম তালুকদার, ওরফে এনামুল ইসলাম টিডি ইত্যাদি।

পুলিশ এনামুল নিজেকে কখনো পুলিশের নায়েক, কখনো হাবিলদার,কখনো পুলিশ অফিসার পরিচয় দেন!

মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটি ( মাতপ্’স) এর কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টার এবং সিলেট বিভাগের পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, পুলিশ এনামুল, সিলেটে পুলিশের বিভিন্ন উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিপি নাম্বার ও নাম প্রকাশ করে সম্মানীয় পুলিশ কর্মকর্তাদের নামে মিথ্যা অভিযোগ করে সম্মানীয় পুলিশ কর্মকর্তাদের বিচার এবং গ্রেফতারের জন্য অনলাইনে যে বিবৃতি কিংবা বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে, তার সাথে সংগঠনের কোনো ধরনের বিন্দুমাত্র সম্পর্ক নেই এবং সে মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটি (মাতপ্’স) এর ও কেউ নন ।

সিলেট পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি অবিলম্বে উক্ত ভূয়া নিউজ প্রকাশকারী পুলিশ এনামুল কে সনাক্ত করে দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানিয়েছেন মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির শীর্ষ ও সিনিয়র নেতৃবৃন্দগন।

মানবাধিকার কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দগন, সিলেট পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে আরো জানিয়েছেন যে, পুলিশ এনামুল, ওরফে এনামুল হক, ওরফে এনামুল ইসলাম, ওরফে এনামুল ইসলাম তালুকদার, ওরফে Anamul Islam Td.MD Anamul Islam.ইত্যাদি।

পুলিশ এনামুল এর চাকুরীর সাত বছর বয়সের মধ্যে যখন যেখানে ছিল তার কর্মস্থলে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে উদ্যেত্বপূর্ণ অসদাচরণের দায়ে তার চাকুরীর বয়সের চাইতে বেশি শাস্তি মুলক পোস্টিং হয়েছে, যদি তার চাকুরীর আমলনামা তদন্ত করা হয় তাহলে তার আসল তথ্য বের হয়ে আসবে।

উল্লেখ্য যে,মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটি (মাতপ্’স) কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে সিলেট বিভাগে
( মানবিক ও সমাজকর্মী আবুল খানের নেতৃত্বে বালাগন্জ উপজেলা কমিটি এবং সংগঠক ও মানবিক ব্যাক্তিত্ব জনাব আসাদ আহমদ ও জাতীয় সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (সিলেট বিভাগ) ও সিলেট বিভাগীয় সভাপতি,সিনিয়র সাংবাদিক, জনাব তোফায়েল আহমেদ এর নেতৃত্বে সিলেট মহানগর কমিটি ছাড়া) সিলেট জেলা, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনামগঞ্জ জেলা কমিটির কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্হগিত আদেশ বলবত থাকবে।