বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক,তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন বি এন পির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান জাতির জনক হত্যাকান্ডের অন্যতম কুশীলব,বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ড পরবর্তী অনেক দেশ প্রেমিক সেনা অফিসার এবং মুক্তিযোদ্ধাদের হত্যাকান্ডেও তিনি জড়িত, তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন বি এন পি নেতারা এখন ক্ষমতায় যাওয়ার জন্যে বোমা সন্ত্রাসীদের নিয়ে দিবাস্বপ্ন দেখছে, আওয়ামী লীগ তাদের রাজপথে প্রতিহত করবে,আগস্ট মাসের পরে আওয়ামী লীগ পুরোদমে মাঠে নামবে তখন দেখা যাবে বোমা সন্ত্রাসের হোতাদের আর মাঠে দেখা যাচ্ছেনা, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আজ বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব বঙ্গবন্ধু হলে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।সংগঠনের সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এম এ সালাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন জেলা সাধারণ সম্পাদক শেখ মো আতাউর রহমান,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পালিতের সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন সহ সভাপতি অধ্যাপক মো মঈনুদ্দিন,মো আবুল কালাম আজাদ,এ টি এম পেয়ারুল ইসলাম,মহিউদ্দিন আহমেদ রাশেদ, স্বজন কুমার তালুকদার,আবুল কাশেম চিশতি,যুগ্ম সাধা রণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন শাহ,সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন বাবলু,নজরুল ইসলাম তালুকদার,সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মো হারুন, আলাউদ্দিন সাবেরী,জাফর আহমেদ, ইদ্রিচ আজগর,প্রদীপ চক্রবত্তী, ডা মো সেলিম,নাজিম উদ্দিন তালুকদার,আবু তালেব,আ স ম ইয়াছিন মাহমুদ,কাযনিবাহী সদস্য বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, সরোয়ার হাসান জামিল,ফোরকান উদ্দিন আহমেদ,ফেরদৌস হাসান আরিফ,মো সেলিম উদ্দিন,আখতার হোসেন খান,গোলাম রব্বানী, মহিউদ্দিন আহমেদ মঞ্জু,সাহেদ সরোয়ার শামীম,বখতেয়ার সাঈদ ইরান,আখতার উদ্দিন মাহমুদ পারভেজ,জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী দিলোয়ারা ইউসুফ, সাধারণ সম্পাদক এড বাসন্তী প্রভা পালিত,মৎস্যজীবী লীগের হারন অর রশীদ,সাদাত আনোয়ার সাদী, যুবলীগের রাশেদ খান মেনন, শেখ ফরিদ চৌধুরী,আবু তৈয়ব,যুব মহিলা লীগের রওশন আরা রত্না,এড উম্মে হাবিবা,জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তানভীর হোসেন তপু,সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম প্রমুখ।